Pre-loader logo

অ্যামেচার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি

অ্যামেচার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) দল রংপুর রাইডার্সের আয়োজনে দ্বিতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে অ্যামেচার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি-২০১৮। অংশগ্রহণ করবে মোট ১৬টি দল। গত বুধবার রাতে ভাটারা থানার ইউনাইটেড সিটিতে (বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার পাশে) এক জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে নতুন আসরের ড্র অনুষ্ঠিত হয়। পাশাপাশি প্রথম আসরে যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন দুই টেক রিপাবলিক ও এমএই ওয়ারিয়র্সের অধিনায়কের হাতে চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফি ও প্রাইজমানি তুলে দেওয়া হয়।
রংপুর রাইডার্সের কর্ণধার, শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের চেয়ারম্যান এবং দেশের শীর্ষ শিল্প প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান সাফওয়ান সোবহান উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। এ সময় রংপুর রাইডার্সের চেয়ারম্যান মোস্তফা আজাদ মহিউদ্দিন, প্রধান নির্বাহী ইশতিয়াক সাদেক, নির্বাহী পরিচালক আনোয়ারুল ইকবাল মিতুসহ ফ্র্যাঞ্চাইজি দলটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও অংশগ্রহণকারী দলসমূহের অধিনায়করা উপস্থিত ছিলেন।
অ্যামেচার চ্যাম্পিয়ন ট্রফির প্রথম আসরে দলের সংখ্যা ছিল ১২টি। প্রাইজমানি ছিল দেড় লাখ টাকা। এবার দলের সংখ্যার সঙ্গে প্রাইজমানিও বেড়ে দুই লাখ করা হয়েছে। রানার্স আপ দলকে দেওয়া হবে এক লাখ টাকা। খেলা হবে টি-২০ ফরম্যাটে। ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা আইসিসির নিয়ম মেনে খেলা হবে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কাছ থেকে আম্পায়ার নেওয়া হবে।
এই টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছেন সাবেক ক্রিকেটার ও করপোরেট লিগের খেলোয়াড়রা। জাতীয় দলের সাবেক পেসার তালহা জুবায়ের বলেন, ‘এটা দারুণ একটা উদ্যোগ। এর মাধ্যমে ক্রিকেটের উন্মাদনা আরও বেড়ে যাবে।’
অ্যামেচার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির খেলা মাঠে গড়াবে ১২ অক্টোবর থেকে। ১৬ দল চার গ্রুপে বিভক্ত। ‘এ’ গ্রুপে রয়েছে— কমনওয়েলথ সিসি, ট্রাভেল বুকিং, র‌্যাঙ্কল ও টোটাল টাইগার ক্রিকেট। বি গ্রুপে রয়েছে— টেক রিপাবলিক, হক ব্রাদার্স, কেসি সুপারস্টারস ও ঢাকা ইন্ডিয়ানস। সি গ্রুপে— এমএই ওয়ারিয়র্স, এসপিজি বয়েজ, গুলশান ইয়ুথ ক্লাব ও বেঙ্গল ট্যাজ। ডি গ্রুপে খেলবে— লায়লা ক্রিকেট ক্লাব, রেড কোর্ট সিসি, গ্রিন স্ট্যালিয়ন্স ও কাজী কিংস। প্রতিটি গ্রুপ থেকে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স আপ দল কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে যাবে। ৩ নভেম্বর টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। আগামী বছর এই টুর্নামেন্টটি দেশের বাইরে করা হবে বলেও ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।
বসুন্ধরা গ্রুপ রংপুর রাইডার্সের দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রথম আসরেই চ্যাম্পিয়ন হয় উত্তরাঞ্চলের দলটি। তারপর থেকে একের পর এক নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে ক্রিকেটের প্রচার-প্রসারে। সেই প্রচারেরই একটা বড় উদ্যোগ অ্যামেচার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। রংপুর রাইডার্সের কর্ণধার সাফওয়ান সোবহান বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য ক্রিকেটের উন্নয়ন। সে কারণেই এ ধরনের টুর্নামেন্টের উদ্যোগ নিয়েছি। তবে ক্রিকেটের পাশাপাশি ফুটবলের দিকেও আমাদের নজর আছে। আমরা ইতিমধ্যে একাডেমি (ক্রিকেট ও ফুটবল) তৈরির কাজ শুরু করে দিয়েছি।’
বিপিএলের গত আসরে মাশরাফি বিন মর্তুজার নেতৃত্বে রংপুর রাইডার্স চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। এবারও মাশরাফিই নেতৃত্ব দেবেন। নড়াইল এক্সপ্রেসকে ছাড়াও আরও তিনজন ক্রিকেটারকে রেখে দিয়েছে দলটি। তারা হলেন— ক্রিস গেইল, মোহাম্মদ মিথুন ও নাজমুল অপু। বিপিএলের নিয়ম অনুযায়ী আগের বছরের দল থেকে মাত্র ৪ জন খেলোয়াড়কেই ধরে রাখা যাবে। ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও ছেড়ে দিতে হয়েছে পেসার রুবেল হোসেন, ব্রেন্ডন ম্যাককালামের মতো নামি তারকাকে। তবে সামনের আসরেও চ্যাম্পিয়নশিপে লড়াই করার মতো দল গঠন করতে যাচ্ছে রংপুর রাইডার্স। দলটির প্রধান নির্বাহীর ভাষ্য, ‘গত আসরেও আমাদের প্রথম লক্ষ্য ছিল শীর্ষে চারে জায়গা নিশ্চিত করা, তারপর চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য লড়াই করা। এবারও একই লক্ষ্য থাকবে। যদিও একই সময়ে বিগব্যাশ (অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া টি-২০) থাকায় তারকা ক্রিকেটারদের পাওয়া কঠিন হয়ে যাবে। তবে আমরা সেরা তারকাদের নিয়েই দল গঠন করব।’

Copyright © 2020 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.