Pre-loader logo

আগামী ISL টুর্নামেন্টে SC East Bengal-র ইনভেস্টর হতে প্রস্তুত বসুন্ধরা

আগামী ISL টুর্নামেন্টে SC East Bengal-র ইনভেস্টর হতে প্রস্তুত বসুন্ধরা

চলতি ইন্ডিয়ান সুপার লিগে (Indian Super League) একেবারেই ভালো ফর্মে নেই SC ইস্টবেঙ্গল (SC East Bangal)। এই মরশুমে লাল-হলুদ ব্রিগেড এখনও পর্যন্ত একটাই মাত্র ম্য়াচ জিততে পেরেছে। এই পরিস্থিতিতে ক্লাব কর্তাদের সঙ্গে বিনিয়োগকারী সংস্থা শ্রী সিমেন্টের সঙ্গে প্রচন্ড ঝামেলা লেগে গিয়েছে। দুই পক্ষই একে অপরকে অভিযুক্তের কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে চাইছে। এমন পরিস্থিতিতে আগামী মরশুমে শ্রী সিমেন্ট ইস্টবেঙ্গলে যে আর বিনিয়োগ করতে চাইছে না, ব্যাপারটি ইতিমধ্যেই স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। তবে এই কঠিন পরিস্থিতির মধ্যেও সুখবর পেলেন লাল-হলুদ সমর্থকেরা। শতাব্দী প্রাচীন এই ক্লাবে বিনিয়োগ করতে প্রস্তুত বাংলাদেশের ফুটবল ক্লাব বসুন্ধরা।

বাংলাদেশের শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্রের চেয়ারম্যান তথা বসুন্ধরা গ্রুপের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সায়েম সোবহান বৃহস্পতিবার লাল-হলুদ তাঁবুতে এসে উপস্থিত হয়েছিলেন। সঙ্গে ছিলেন স্ত্রী সাবরিনা সোবহান, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি মহম্মদ ইমরুল হাসান এবং বাংলাদেশের ফুটবল সমর্থকেরা। ক্লাবের তরফ থেকে সায়েম সোবহানকে সাম্মানিক আজীবন সদস্যপদ দেওয়া হয়।

সায়েম সোবহান বললেন, “সবসময় ভেবে এসেছি ইস্টবেঙ্গল আমাদের নিজেদের ক্লাব। আর সেকারণে যখনই এই ক্লাবের পক্ষ থেকে কোনও আমন্ত্রণ আসে, তখন আর না বলতে পারি না। ইস্টবেঙ্গল ক্লাব যেভাবে আমাদের হৃদয় দিয়ে কাছে টেনে নিয়েছে, আশা করব যে আগামীদিনে আমাদের এই সম্পর্ক আরও মজবুত হবে। আমি আন্তরিকভাবে এই কাজে সচেষ্ট হবে। আমাদের দেশে ওদের ফুটবল খেলতে যেতে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।”

অন্যদিকে ইস্টবেঙ্গল কর্তা দেবব্রত সরকার বললেন, “এক সময় দুই বাংলা এক ছিল। দুই বাংলার শিল্প, সাহিত্য, খেলাধুলা এবং জীবনাদর্শ গোটা পৃথিবীর সামনে উজ্জ্বল নজির তৈরি করেছে। কোনও এক অজানা দেওয়ালের কারণে আমাদের মধ্যে কিছুটা দূরত্ব তৈরি হয়েছে। কিন্তু আমাদের হৃদয়ে বাংলাদেশ সেই একইরকম রয়েছে। আর সেই হৃদয়ের টানেই দুই বাংলার আবার এক সাথে চলা প্রয়োজন। সোবহান ভাই এবং ইস্টবেঙ্গল ক্লাব মিলিতভাবে দুই বাংলার সমন্বয়ে কাজ করতে পারে।”

এবার প্রশ্ন হল, পরবর্তী ISL টুর্নামেন্টে কি বসুন্ধরা ইস্টবেঙ্গল ক্লাবে বিনিয়োগ করবে? জবাবে সোবহান বললেন, “কেন নয়? হতেই পারে। ইস্টবেঙ্গলকে আগামীদিনে আমরা সবরকমভাবে সাহায্য করতে চাই। আমরাও ভারতীয় ফুটবলের সঙ্গে যুক্ত হতে চাই।” শোনা যাচ্ছে, চলতি ISL টুর্নামেন্ট শেষ হলেই নাকি বসুন্ধরা ক্লাবের বাকি কর্তাদের সঙ্গে লাল-হলুদ কর্তারা আলোচনায় বসবেন। সেখানেই স্পোর্টিং রাইটস নিয়ে আলোচনা করা হবে।

 

Source : The Daily Eisamay

Copyright © 2022 Sayem Sobhan Anvir.
All Rights Reserved.