Pre-loader logo

জমকালো আয়োজনে শেষ হলো জুয়েলারি এক্সপো

জমকালো আয়োজনে শেষ হলো জুয়েলারি এক্সপো
আলো ঝলমলে রাতে শেষ হলো বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো আয়োজিত ‘বাংলাদেশ জুয়েলারি এক্সপো ২০২২’। হাজার বছরের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরার (আইসিসিবি) ১, ২ ও ৩ নম্বর হলে ১৭ মার্চ বসেছিল তিন দিনের এই প্রদর্শনী। শনিবার ছিল শেষ দিন। আলো ঝলমলে মনোরম আয়োজনের মধ্য দিয়ে শেষ হলো অনুষ্ঠানটি।
শেষ দিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ‘বাংলাদেশ জুয়েলারি অ্যাসোসিয়েশন’-এর সভাপতি সায়েম সোবহান আনভীর।
রাত ৮টা ৩০ মিনিটে কনভেনশন সিটির ২ নম্বর হলে শুরু হয় গ্ল্যামারস ফ্যাশন শো। ঘণ্টাব্যাপী এই শোতে অংশ নেন দেশসেরা র্যা ম্প মডেলরা। বহুরং আলো ঝলমলে মঞ্চে একের পর এক পরিবেশনা মুগ্ধ করে রাখে উপস্থিত দর্শকদের। ‘মায়াবন বিহারিনী হরিণী’ রবীন্দ্রসংগীতের পাশাপাশি ‘কিছু কিছু কথা’ গানে মডেলরা যেমন পারফর্ম করেছেন, তেমনি পারফর্ম করেছেন আবহ সংগীতের সঙ্গেও।
এরপর ‘বেস্ট স্টল’ হিসেবে সেরা পাঁচটি স্টলকে পুরস্কৃত করা হয়। ‘বেস্ট স্টল’ হিসেবে প্রথম হয়েছে আমিন জুয়েলার্স। সেরা পাঁচ স্টলের পুরস্কার শেষে শুরু হয় মেলায় উপস্থিত সাধারণ মানুষদের কুপন নিয়ে কাঙ্ক্ষিত র্যা ফেল  ড্র। র্যা ফেল  ড্রতে তৃতীয় পুরস্কার পেয়েছেন ১০ জন ভাগ্যবান ব্যক্তি। তাঁদের প্রত্যেকে পেয়েছেন এক লাখ টাকা করে পুরস্কার। বিজয়ী ১০ জনের কুপন নম্বর যথাক্রমে—০৩৫৫১, ০০৪৭৮, ০৪০৪৩, ০৩০৯৯, ০৪৭৮৪, ০১১০৭, ০৪২৮৭, ০৩৫০৭, ০২০৭১ ও ০০৯২৫।
দ্বিতীয় পুরস্কারের জন্য কুপন তুলতে মঞ্চে আহ্বান করা হয় ‘বাংলাদেশ জুয়েলারি অ্যাসোসিয়েশন’-এর সভাপতি সায়েম সোবহান আনভীরকে। তিনি মঞ্চে ওঠার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় তুমুল করতালি। র্যা ফেল ড্রতে দ্বিতীয় পুরস্কার পাওয়া ভাগ্যবান ব্যক্তি পেয়েছেন পাঁচ লাখ টাকা। ভারতের তরুণ পোদ্দার পেয়েছেন এই পুরস্কার। আর প্রথম পুরস্কার বিজয়ী আব্দুল কুদ্দুস জিতেছেন ১০ লাখ টাকা। তাঁর কুপন নম্বর ০৩৭৯২। কুদ্দুসের নামটি যখন ঘোষণা করা হয় তখন তিনি উপস্থিত ছিলেন না। উপস্থাপিকা তৌহিদা শ্রাবণ্য তাঁর মোবাইল নম্বরটি নিয়ে সরাসরি কল করেন। রাত তখন সাড়ে ১১টা। কুদ্দুস ফোনটি রিসিভ করে যখন শোনেন ১০ লাখ টাকা পুরস্কার জিতেছেন, কিছু সময় স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিলেন। শেষ পর্যন্ত নিকুঞ্জর বাসিন্দা কুদ্দুস রাত ১২টায় কনভেনশন হলে উপস্থিত হয়ে পুরস্কারটি গ্রহণ করেন।
রাতে ডিনার শেষে গান পরিবেশন করতে মঞ্চে ওঠে ফুয়াদ আল মুক্তাদিরের ব্যান্ড ‘ফুয়াদ অ্যান্ড ফ্রেন্ডস’। তারা একে একে ফোক, মডার্ন ও রক গান গেয়ে মাতিয়ে রাখে মঞ্চ।
এ সময় উপস্থিত দর্শকরাও সুরের মূর্ছনায় ডুবে যান। অনেকে মঞ্চের সামনে গিয়ে সেলফি তুলে সময়টিকে স্মরণীয় করে রাখতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। ব্যান্ডটির দলনেতা ফুয়াদ বলেন, ‘অনেক দিন পর স্টেজে গান পরিবেশন করছি। সরাসরি দর্শকদের প্রতিক্রিয়া জানতে একজন শিল্পীর স্টেজ শোয়ের বিকল্প নেই। আমি এই সময়টা দারুণ উপভোগ করি। ’
ফুয়াদের দলের গান পরিবেশনা শেষে অনুষ্ঠিত হয় সাংবাদিকদের জন্য র্যা ফেল ড্র। মোট ২৭টি পুরস্কার দেওয়া হয় সাংবাদিকদের। নানা ধরনের পুরস্কার পেয়ে সাংবাদিকরাও হয়ে ওঠেন উচ্ছ্বসিত। সবাই একবাক্যে স্বীকার করেন, প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হওয়া ‘বাংলাদেশ জুয়েলারি এক্সপো ২০২২’ দারুণ সফল হয়েছে।

Copyright © 2022 Sayem Sobhan Anvir.
All Rights Reserved.