Pre-loader logo

নতুন সম্পর্কের জোরালো ইঙ্গিত লাল হলুদ তাঁবুতে

নতুন সম্পর্কের জোরালো ইঙ্গিত লাল হলুদ তাঁবুতে

ইস্টবেঙ্গল মাঠে দুই বাংলার ফুটবল যেন মিলেমিশে গেল। দুই দেশের ফুটবল কর্তাদের উপস্থিতিতে রংচংয়ে হয়ে উঠল লাল হলুদ মাঠ।

ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের হৃদয়গ্রাহী অনুষ্ঠানে মিলনের আহ্বান উঠে গেল। ইস্টবেঙ্গল ক্লাব লনে এক হৃদয়গ্রাহী অনুষ্ঠান, আর সেই ঐতিহাসিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমেই দুই বাংলার ফুটবল সন্ধিক্ষণে নতুন যুগ রচিত হল বৃহস্পতিবার।

বাংলাদেশের শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্রের চেয়ারম্যান তথা বসুন্ধরা গ্রুপ এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর সায়েম সোবহান কে আজ ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের তরফ থেকে সম্মানিক আজীবন সদস্য পদ প্রদান করা হল। এই অনুষ্ঠানে সায়েম সোবহান এর সাথে উপস্থিত ছিলেন তাঁর সহধর্মিনী মিসেস সাবরিনা সোবহান, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন এর সহ সভাপতি মহম্মদ ইমরুল হাসান এবং বাংলাদেশের একাধিক গণ্যমান্য ব্যক্তিত্ব।

অনুষ্ঠানের শুরুতে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের সম্পাদক আবেগঘন কন্ঠে সবাইকে স্বাগত জানিয়ে নয়া সম্পর্কের রিংটোন সেট করে দেন। অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশনের সহ সভাপতি সুব্রত দত্ত এবং বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সহ সভাপতি দুজনেই তাঁদের বক্তব্যে দুই বাংলার উত্তুঙ্গ ফুটবল জনপ্রিয়তার কথা তুলে ধরেন।ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের শীর্ষ কর্তা দেবব্রত সরকার তাঁর বক্তব্যে বলেন, “এক সময় দুই বাংলা এক ছিল। শিল্প, সাহিত্য, খেলাধুলা এবং জীবনাদর্শে সারা পৃথিবীর সামনে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করা হয়েছিল I কোনও এক অজানা দেওয়ালের কারণে আমাদের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে। কিন্তু আমাদের হৃদয়ে বাংলাদেশ আজও সেই একই রকম রয়েছে। আজ সেই হৃদয়ের টানেই দুই বাংলার আবার এক সঙ্গে পথ চলা প্রয়োজন। সোবহান ভাই এবং ইস্টবেঙ্গল ক্লাব মিলিত ভাবে দুই বাংলার সমন্বয়ের কাজ করতে পারে।”

সায়েম সোবহানের বক্তব্য উপস্থিত সকলের হৃদয়কে ছুঁয়ে যায় I তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, “ইস্টবেঙ্গল ক্লাব কে নিজের ক্লাব বলেই সবসময় ভেবেছি I তাই ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের তরফ থেকে যখন আমন্ত্রণ আসে তখন আর ‘না’ বলিনিI আর আজকের এই অনুষ্ঠানে ইস্টবেঙ্গল ক্লাব যেভাবে হৃদয় দিয়ে আমাদের কাছে টেনে নিয়েছে, তাতে আমরা মুগ্ধ। আমরাও চাই দুই বাংলার ক্রীড়াপ্রেমী ও সাধারণ মানুষ আগামী ভবিষ্যতে আরো কাছাকাছি আসুক। আমরা আন্তরিক ভাবে এই কাজে সচেষ্ট হব।”

দুই বাংলার ফুটবলের মহা সম্মেলনের এই অনুষ্ঠান আরো হৃদয়গ্রাহী হয়ে ওঠে শ্রীমতী ঋদ্ধি বন্দ্যোপাধ্যায়ের গানে এবং অভিরূপ সেনগুপ্তর নাচের অনুষ্ঠানের মাধ্যমে।

Copyright © 2022 Sayem Sobhan Anvir.
All Rights Reserved.