Pre-loader logo

বর্ণিল আয়োজনে ডেইলি সানের অষ্টম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

বর্ণিল আয়োজনে ডেইলি সানের অষ্টম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

বর্ণিল আয়োজনের মধ্যে দিয়ে উদযাপিত হলো ইংরেজি দৈনিক ‘ডেইলি সানের অষ্টম বর্ষপূর্তি। বুধবার রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় ডেইলি সানের কার্যালয়ে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
এতে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীসহ মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী, কূটনীতিক, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার শুভানুধ্যায়ীরা পত্রিকাটির অফিসে এসে শুভেচ্ছা জানান।
প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আয়োজনে ডেইলি সান পরিবারের সবাইকে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শুভেচ্ছা জানিয়ে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন বলেন, দেশের অন্যতম একটি ইংরেজি দৈনিক হিসেবে ডেইলি সান পাঠকের কাছে জায়গা করে নিয়েছে।
তিনি বলেন, বাংলাদেশ দ্রুততম সময়ের মধ্যে এগিয়ে যাচ্ছে, আজকের বাংলাদেশ সমগ্র বিশ্বে উন্নয়নের বিস্ময়। বাংলাদেশের অর্থনীতি ও সামাজিক যে অগ্রগতি সেই বিষয়গুলো তুলে ধরতে ডেইলি সান ভূমিকা রাখবে বলে আশা প্রকাশ করেন স্পিকার।
স্পিকার বলেন, বাংলাদেশে নারী ক্ষমতায়ন ও গণতন্ত্রের যে অগ্রযাত্রা তা দেশের মানুষের পাশাপাশি বহির্বিশ্বের কাছে তুলে ধরবে বলে আমি পত্রিকাটির কাছে প্রত্যাশা করি।
তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ে তুলতে ও ২০২১ সালের মধ্যে উন্নয়শীল দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশ গড়ার ক্ষেত্রে দেশের সংবাদপত্র একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলেও আশা করেন স্পিকার।
এর আগে সকালে কেক কেটে বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানের শুভসূচনা করেন বসুন্ধরা গ্রুপ ও ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীর ও তার সহধর্মিণী সাবরিনা সোবহান।
এ সময় তাদের সঙ্গে আরও ছিলেন তথ্যপ্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম ও ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা, ব্রাজিলের রাষ্ট্রদূত হোয়াও তাবাজারা ডি অলিভেরাসহ কয়েকটি দেশের কূটনীতিকরা।
অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ডেইলি সান সম্পাদক এনামুল হক চৌধুরী, কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন, বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক নঈম নিজাম, ডেইলি সানের নির্বাহী সম্পাদক শিয়াবুর রহমান শিহাব, কালের কণ্ঠের নির্বাহী সম্পাদক মোস্তফা কামাল, বাংলানিউজ টোয়েন্টিফোরের কনসালট্যান্ট এডিটর জুয়েল মাজহার, নিউজ টোয়েন্টিফোরের নির্বাহী পরিচালক হাসনাইন খুরশেদ।
তথ্যপ্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, আশা করি ডেইলি সান পরিবার সবসময় নীতি-নৈতিকতা মেনে সাংবাদিকতার মাধ্যমে দেশের উন্নয়নে আরও এগিয়ে যাবে। সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে নানা রকম উদ্ভাবনী প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে।
শুভেচ্ছা বক্তব্যে ভারতীয় হাইকমিশনার শ্রিংলা ডেইলি সানকে একটি সফল ব্র্যান্ড হিসেবে গড়ে তোলায় প্রতিষ্ঠানের সম্পাদকসহ সবাইকে সাধুবাদ জানান।
এ ছাড়াও আওয়ামী লীগের উপপ্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, বিএনপিনেতা ও সাবেক মন্ত্রী চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক একিউএম বদরুদ্দোজ্জা চৌধুরীসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল এবং সামাজিক সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
জাপান, ভিয়েতনাম, সৌদি আরব, আরব আমিরাত, জার্মানিসহ ঢাকায় নিযুক্ত বিভিন্ন দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত ও কর্মকর্তারা ডেইলি সান পত্রিকাটির কার্যালয় এসে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।
বাসসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল কালাম আজাদ, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি সাইফুল ইসলামসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।
২০১০ সালের ২৪ অক্টোবর আত্মপ্রকাশ করে ডেইলি সান।

Copyright © 2020 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.