Pre-loader logo

বসুন্ধরার করোনা হাসপাতাল উদ্বোধন

বসুন্ধরার করোনা হাসপাতাল উদ্বোধন

আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন হলো করোনা রোগের চিকিৎসায় দেশের সর্ববৃহৎ চিকিৎসা কেন্দ্র ‘বসুন্ধরা কভিড-১৯ আইসোলেশন হাসপাতাল’। গতকাল রোববার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক হাসপাতালের উদ্বোধন করেন। রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় নির্মিত হাসপাতালটিতে সব মিলিয়ে দুই হাজার ১৩টি বেড রয়েছে। ৪০০টি বেডে রোগীকে অক্সিজেন দেওয়ার সুবিধা আছে। হাসপাতালের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনাভাইরাসের প্রকোপ বৃদ্ধির আশঙ্কা করে বলেন, মানুষ ঘরে না থেকে বাইরে ভিড় করছেন। ভিড় কমাতে না পারলে সংক্রমণ আরও বাড়বে। তিনি বলেন, আমরা যখন দেখি বিভিন্ন যানবাহনে, বিশেষ করে রিকশা-সিএনজিতে মানুষ জটলা পাকায়; অনেক লোক চলাফেরা করে; দোকানে, শিল্পকারখানার সামনে, ফেরিঘাটে অনেক লোক একত্রিত হয়, এসব দেখে আমরা আতঙ্কিত হই। আমরা যদি বাইরে যাওয়া না কমাই তাহলে সংক্রমণ বাড়তেই থাকবে।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য ঢাকার ১৪টি হাসপাতালে তিন হাজার শয্যা আছে। বসুন্ধরা হাসপাতাল এবং সিটি করপোরেশনের অস্থায়ী আইসোলেশন হাসপাতাল মিলিয়ে সাড়ে সাত হাজার আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত করা হয়েছে।
কভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসায় সরকারের পাশে দাঁড়ানোয় বসুন্ধরা গ্রুপকে ধন্যবাদ জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, কভিড-১৯ ভাইরাস ‘হঠাৎ করে’ এসেছে। এর চিকিৎসা না থাকায় উন্নত-অনুন্নত সব দেশই বিপাকে পড়েছে। চায়না বৃহৎ শক্তি, তারাও এলোমেলো হয়ে গেছে। ইউরোপ-আমেরিকাও হিমশিম খাচ্ছে।
অনুষ্ঠানে বসুন্ধরা গ্রুপ এবং ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর সুষ্ঠুভাবে হাসপাতালটি তৈরির জন্য প্রধানমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ জানান। হাসপাতালটি সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য সবার সহযোগিতা কামনা করেন ও গণমাধ্যম কর্মীদের জন্য হাসপাতালের ২০০টি বেড সংরক্ষণের অনুরোধ জানান।
স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আসাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. সাজ্জাদ হায়দার। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ডেইলি সানের সম্পাদক এনামুল হক চৌধুরী, কালের কণ্ঠের সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন, বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক এবং নিউজ টোয়েন্টিফোরের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নঈম নিজাম, বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কমের সম্পাদক জুয়েল মাজহার, কালের কণ্ঠের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মোস্তফা কামাল প্রমুখ।

Copyright © 2020 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.