Pre-loader logo

বসুন্ধরা নিয়ে এলো স্বাস্থ্য সহনীয় মশার কয়েল ‘এক্সট্রিম’

বসুন্ধরা নিয়ে এলো স্বাস্থ্য সহনীয় মশার কয়েল ‘এক্সট্রিম’

মাত্র ১৫ সেকেন্ডে মশামুক্ত হবে ঘর ও আশপাশ; কিন্তু মানবস্বাস্থ্যের জন্য ডেকে আনবে না কোনো বিপদ। এমন ভাবনাকে সামনে রেখে দীর্ঘদিন গবেষণার পর বিশেষ ধরণের কয়েল বাজারে নিয়ে এলো বসুন্ধরা গ্রুপ।

‘মশার বিরুদ্ধে এক্সট্রিম সুরক্ষা’ স্লোগানে ‘এক্সট্রিম’ ব্রান্ডের নতুন এই কয়েলটির আনুষ্ঠানিক মোড়ক উম্মোচন করা হয় আজ রবিবার। রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় প্রতিষ্ঠানটির ইন্ডাস্ট্রিয়াল হেড কোয়ার্টার-২ এ কেক কেটে আনুষ্ঠানিকভাবে কয়েলটির মোড়ক উম্মোচন করেন বসুন্ধরা গ্রুপের পরিচালক ইয়াশা সোবহান।

পরে এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, স্বাস্থ্য সহনীয় ও মশা তাড়াতে অতি কার্যকর এই ‘এক্সট্রিম’ মশার কয়েল বাজারে নিয়ে এসেছে বসুন্ধরা গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা পেপার মিলস লি.। অতি কার্যকরী ডাইমেফ্লুথ্রিন সমৃদ্ধ প্লান্ট ফাইবার দিয়ে তৈরি করা হয়েছে এই কয়েল, যা মাত্র ১৫ সেকেন্ডে মশামুক্ত করবে ঘর ও আশপাশ। ফাইবার কয়েল হওয়ায় এটি সহজে ভাঙবে না। একটানা আট ঘন্টা নিরবচ্ছিন্ন সুরক্ষা দেবে মশার উৎপাত থেকে। পরিবেশবান্ধব, কম ধোঁয়া এবং এসিডমুক্ত হওয়ায় এটি মানব স্বাস্থ্যের জন্য সহনীয়।

সংবাদ সম্মেলনে বসুন্ধরা গ্রুপের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, বছরের বর্ষা মৌসুমে ডেঙ্গু, চিকুনগুনিয়ার মতো মশাবাহিত সংক্রামক ব্যাধির আধিক্য বাড়ে। ঢাকাসহ সারাদেশে এর প্রভাব বিদ্যমান। তাই মশার আক্রমন থেকে রক্ষা পেতে যেমন সচেতনতা দরকার, তেমনি মশার কয়েলের ব্যবহারও প্রয়োজনীয়। বাজারে নিম্নমানের বিভিন্ন দেশি-বিদেশি কয়েলে সাধারণ মানুষ মারাত্মক ক্ষতির শিকার হন। এগুলোর স্বাস্থ্যঝুঁকি অনেক বেশি। এজন্য মশার কয়েলের বাজারে একটি মানসম্মত, আধুনিক ও কার্যকর সমাধান দেওয়ার জন্যই আমাদের এ যাত্রা শুরু হল। কয়েলটি খুব অল্প সময়ের মধ্যে সারা দেশে পাওয়া যাবে।

মোড়ক উম্মোচন অনুষ্ঠানে বসুন্ধরা গ্রুপের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Copyright © 2020 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.