Pre-loader logo

বসুন্ধরা ফুড অ্যান্ড বেভারেজকে নাম্বার ওয়ান করাই লক্ষ্য

বসুন্ধরা ফুড অ্যান্ড বেভারেজকে নাম্বার ওয়ান করাই লক্ষ্য

বসুন্ধরা গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান সাফিয়াত সোবহান বলেছেন, ‘সবাই নিরলস পরিশ্রম ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করার কারণেই বসুন্ধরা গ্রুপ তার অবস্থান ধরে রেখেছে। বসুন্ধরা ফুড অ্যান্ড বেভারেজকে নাম্বার ওয়ান প্রতিষ্ঠান করাই আমাদের লক্ষ্য।’ ‘বসুন্ধরা ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লি.-এর পার্টনারস অ্যাওয়ার্ড’ ২১০৭ প্রদান অনুষ্ঠানে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।
রাজধানীর একটি হোটেলে ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে সর্বোচ্চ লক্ষ্যমাত্রা অর্জনকারী বিশিষ্ট ব্যবসায়ীদের অনুষ্ঠানে সনদ দিয়ে সম্মানিত করা হয়। দেশে প্রথমবারের মতো খাদ্যপণ্য উৎপাদনকারী কোনো প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ব্যবসায়ীদের এমন সনদ দেওয়া হলো।
অনুষ্ঠানে সাফিয়াত সোবহান বলেন, ভোগ্যপণ্যের ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটাতে শিগগিরই দৈনিক এক হাজার টন আটা-ময়দা উৎপাদনের পাশাপাশি আরো এক হাজার ১৫০ টন উৎপাদন ক্ষমতাসম্পন্ন প্লান্ট সংযোজিত হবে। এ ছাড়া প্রতিদিন দুই হাজার টন উৎপাদন ক্ষমতাসম্পন্ন ভোজ্য তেল প্লান্টও শিগগিরই উৎপাদনে যাচ্ছে।
অনুষ্ঠানের শুরুতে বসুন্ধরা ফুড অ্যান্ড বেভারেজের বাল্ক সেলস প্রধান রেদোয়ানুর রহমান অতিথিদের শুভেচ্ছা জানান। গ্রাহকদের সেবা দিয়ে কিভাবে এ পণ্য ভোক্তাদের কাছে আরো জনপ্রিয় করা যায় সেসব বিষয়ে আলোচনা করেন তিনি। পরে তিনি আগত ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। বিশিষ্ট ব্যবসায়ীরাও বসুন্ধরার পণ্য বিক্রয়ের ক্ষেত্রে তাঁদের অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন। পরে লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা ব্যবসায়ীদের হাতে সনদ তুলে দেওয়া হয়।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বসুন্ধরা ফুড অ্যান্ড বেভারেজ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের (বিএফবিআইএল) হেড অব সাপ্লাই চেইন আব্দুস শুকুর, জেনারেল ম্যানেজার (অ্যাকাউন্টস অ্যান্ড ফাইন্যান্স) বেলাল হোসেইন, মানবসম্পদ এবং লজিস্টিক প্রধান (প্লান্ট) সাদ তানভীর, ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (প্লান্ট অপারেশন) নাজমুল হাবিবসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্য থেকে লটারির মাধ্যমে আকর্ষণীয় পুরস্কার প্রদান করে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

Copyright © 2020 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.