Pre-loader logo

বসুন্ধরা সিটি খুলছে আজ

বসুন্ধরা সিটি খুলছে আজ

যেকোনো উৎসব-পার্বণসহ সারা বছরের কেনাকাটায় ক্রেতাদের প্রথম পছন্দ বসুন্ধরা সিটি শপিং মল। তবে করোনা মহামারির কারণে গত ২৫ মার্চ থেকে বন্ধ রাখা হয় আন্তর্জাতিক মানের এই বিপণিবিতান। ক্রেতা-দর্শনার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করে অবশেষে আজ শুক্রবার খুলছে এটি।

টানা ৮০ দিন বন্ধ থাকার পর বসুন্ধরা সিটি শপিং মল খোলার আগের দিন গতকাল বৃহস্পতিবার সাধারণ মানুষের উপস্থিতি দেখা যায় এর সামনে। ক্রেতা-বিক্রেতার সবার স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে কাজ করবে বিশেষ পর্যবেক্ষক কমিটি।

শপিং মলের ইনচার্জ এবং ঊর্ধ্বতন নির্বাহী পরিচালক (হিসাব ও অর্থ) শেখ আব্দুল আলীম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বসুন্ধরায় আসা ক্রেতাসাধারণের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য প্রবেশ পথগুলোতে ডিজইনফেকশন টানেল, হাত ধোয়ার বেসিন ও স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ ছাড়া সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণ ও বিভিন্ন উপায়ে সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধির ব্যবস্থা এরই মধ্যে বাস্তবায়িত হয়েছে। ক্রেতাসাধারণ ও দর্শনার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাভস পরার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

বসুন্ধরা সিটি শপিং কমপ্লেক্স ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি এম এ হান্নান আজাদ বলেন, ‘যেহেতু এটি আন্তর্জাতিক মানের মার্কেট, তাই প্রত্যেক ক্রেতার জন্য শতভাগ সুরক্ষা নিশ্চিত করার পাশপাশি চাপমুক্তভাবে নিরাপদে কেনাকাটা করার সুযোগ করে দিতে চাই আমরা। তাই অনেক মার্কেট আগে খুললেও আমরা খুলিনি। যাতে ক্রেতাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারি, এ জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’

গতকাল বৃহস্পতিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শপিং মলের সামনে ক্রেতা-দর্শনার্থীদের সারিবদ্ধভাবে দাঁড়ানোর জন্য চিহ্ন এঁকে দেওয়া হয়েছে। মূল ফটকের সামনে রয়েছে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা। হাত ধোয়ার পর দাঁড়াতে হবে ডিজইনফেকশন টানেলের সামনে। সেখানে মাপা হবে তাপমাত্রা। তাপমাত্রা মেপে টানেলের ভেতর দিয়ে ফটকের সামনে গেলে দেওয়া হবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার। সতর্কতার অংশ হিসেবে লিফট বন্ধ থাকবে। তবে চলন্ত সিঁড়ি চলবে। সেটি ব্যবহারে সবাইকে সতর্ক হতে হবে। দুজনের মধ্যে দূরত্ব বজায় রাখতে নিয়োজিত থাকবেন প্রহরী।

ক্রেতা-বিক্রেতাদের কেউ মাস্ক ছাড়া ভেতরে ঢুকতে পারবে না। সবার জন্য মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এ ছাড়া মার্কেটের ভেতরে ফুডকোর্টগুলোতে দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। প্রতিদিন দোকানের মেঝে ও দেয়াল পরিষ্কার করাসহ নিজ উদ্যোগে জীবাণুনাশক ছিটাতে হবে।

জানা গেছে, স্বাস্থ্যবিধিসহ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার বিষয়গুলো পর্যবেক্ষণের জন্য একটি বিশেষ কমিটি করা হয়েছে। বয়স্ক ও শিশুদের মার্কেটে না আনার জন্য নিরুৎসাহিত করা হবে।

খতমে কোরআন, বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত : বসুন্ধরা সিটি শপিং মল খোলা উপলক্ষে গতকাল বাদ আসর খতমে কোরআন, বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় করোনা ভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকা, ব্যাবসায়িক সমৃদ্ধি অর্জন, মানুষের জান-মালের নিরাপত্তা, দেশ ও জাতির সামগ্রিক অগ্রগতির জন্য দোয়া করা হয়। দোয়া ও মোনাজাতে বসুন্ধরা সিটির মেকানিক্যাল বিভাগের নির্বাহী পরিচালক মো. মাহবুব মোর্শেদ খান, মানবসম্পদ-প্রশাসন-নিরাপত্তা বিভাগের ঊর্ধ্বতন মহাব্যবস্থাপক মেজর (অব.) মোল্লা মুশতাক রেজাসহ বসুন্ধরা সিটির কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

Copyright © 2020 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.