Pre-loader logo

শেষ মিনিটে জয় হাতছাড়া শেখ রাসেলের

শেষ মিনিটে জয় হাতছাড়া শেখ রাসেলের

৬ মিনিটেই পিছিয়ে পড়ে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। তাতে কী! এরপর ছন্দময় খেলা খেলে ২-১ গোলে এগিয়ে যায় জনপ্রিয় দলটি। কিন্তু দুর্ভাগ্য পিছু নিলে উৎসব কি করা যায়? শেষ মিনিটে গোল হজম করে পয়েন্ট ভাগাভাগিতে মাঠ ছাড়ে সাবেক চ্যাম্পিয়নরা। গতকাল টিম বিজেএমসির বিপক্ষে ২-২ গোলে ড্র করে শেখ রাসেল। শিরোপার সম্ভাবনা আগেই শেষ হয়ে গেছে। টপ ফাইভে থাকতেই তারা এখন পেশাদার লিগে লড়ছে। গতকাল পয়েন্ট হারানোর এই সম্ভাবনাও ম্লান হতে চলেছে। কেননা দিনের প্রথম ম্যাচে রহমতগঞ্জকে ২-১ গোলে হারিয়ে ২৮ পয়েন্ট নিয়ে ৫-এ থাকার সম্ভাবনাটা মজবুত করেছে ঢাকা মোহামেডান। সমান ম্যাচে রাসেলের সংগ্রহ ২৫। টিম বিজেএমসি দুর্বল হলেও হালকা করে দেখার উপায় ছিল না। বড় বড় দলকে রুখে দিয়েছে তারা। সতর্ক হয়ে মাঠে নামে শেখ রাসেল। প্রতিপক্ষ যে ছেড়ে কথা বলবে না তা টের পেয়ে যায় ৬ মিনিটে গোল খেয়ে। কিংসলের পেনাল্টি গোলে এগিয়ে যায় একসময় ফুটবলে আলোচিত দল বিজেএমসি। ২৮ মিনিটে ইসলাম জ্যাকির গোলে সমতায় ফিরে শেখ রাসেল। এর পরই ম্যাচ নিয়ন্ত্রণে নিয়ে নেয় তারা। মনে হচ্ছিল যে কোনো সময় এগিয়ে যাবেন মানিকের শিষ্যরা। সুযোগ হাতছাড়া করায় গোল হয়নি। ১-১ অবস্থায় থেকে বিরতিতে যায় দুই দল। দ্বিতীয়ার্ধে দুই দল গোলের জন্য মরিয়া ছিল। তবে অপেক্ষাকৃত সুযোগ পায় শেখ রাসেল। প্রতিপক্ষের ডি-বক্সে বার বার হানা দিলেও কাজের কাজটি করতে পারছিল না তারা। শেষ পর্যন্ত পিছিয়ে থাকা শেখ রাসেল লিড নেয়। ৮০ মিনিটে ফ্রান্সিসকোর গোলে শেখ রাসেল ২-১ গোলে এগিয়ে যায়। খেলা একেবারে শেষের দিকে। ম্যাচের ১ মিনিট আগে পাশবন মোল্লা নাটকীয়ভাবে ম্যাচে সমতা ফেরান। শেষ মিনিটের গোলে নিশ্চিত জয় হাতছাড়া হয়ে যায় শেখ রাসেলের। এদিকে দিনের প্রথম ম্যাচে ঢাকা মোহামেডান ২-১ গোলে পরাজিত করে পুরান ঢাকার রহমতগঞ্জকে। এই জয়ের পরও টপ থ্রিতে স্থান পাওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। লক্ষ্য তাদের ৪-এ থেকে এএফসি কাপ বাছাই পর্ব খেলার। যদিও কাজটি কঠিন। কেননা সাইফের সংগ্রহ ৩৫। যাক, চেষ্টা করায় তো ক্ষতি নেই। তাই জয়ের জন্য মোহামেডান ছিল মরিয়া। সফলও হয়েছে। প্রথম পর্বে ড্র করলেও দ্বিতীয় পর্বে জায়ান্ট কিলার রহমতগঞ্জকে হারিয়েছে। ৬ মিনিটে কিংসলের গোলে এগিয়ে যায় সাদা-কালোরা। ৪ মিনিট পরই রহমতগঞ্জের পক্ষে সমতা ফেরান সোহেল। ৩১ মিনিটে নাসিরের গোলে পুনরায় এগিয়ে যায় মোহামেডান। শেষ পর্যন্ত জয় নিয়ে ৫-এ অবস্থান করছে ১৫ বছর ধরে লিগে শিরোপা না জেতা দলটি।

Copyright © 2020 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.