Pre-loader logo

‘সায়েম সোবহান আনভীরের হাত ধরেই স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা স্বর্ণযুগে ফিরবে’ – News 24

‘সায়েম সোবহান আনভীরের হাত ধরেই স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা স্বর্ণযুগে ফিরবে’  – News 24

বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বাজুস) সাবেক সভাপতি ও স্ট্যান্ডিং কমিটি অন ডিস্ট্রিক মনিটরিংয়ের চেয়ারম্যান ডা. দিলীপ কুমার রায় বলেছেন, বাংলাদেশের স্বর্ণ ব্যবসার স্বর্ণযুগ ফিরিয়ে আনতে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা স্বর্ণ নীতিমালা প্রণয়ন করছেন। সেই নীতিমালা বাস্তবায়নের মাধ্যমে ব্যবসায়ীদের অধিকার সুরক্ষা নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্প প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। তার হাত ধরেই স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের স্বর্ণযুগ ফিরে আসবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। আজ সোমবার বিকেলে পটুয়াখালী প্রেসক্লাবের ড. আতাহার উদ্দিন মিলনায়তনে বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন পটুয়াখালী জেলা শাখা আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, সায়েম সোবহান আনভীর সংগঠনের নেতৃত্বে আসতে চাননি। আমরা আমাদের তাগিদে তাকে সভাপতি পদে নিয়ে এসেছি। আমাদের আহ্বানে সাড়া দিয়ে আমাদের সাথে যুক্ত হওয়ায় বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্প প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীরকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। আনভীর সাহেব কখনও ব্যবসায় পিছিয়ে থাকেন না। তিনি যে ব্যবসায় হাত দেন সেই ব্যবসা প্রসারিত হয়। তাই স্বর্ণের স্বর্ণযুগ ফিরিয়ে আনতে হবে এবং সারা বাংলাদেশের সকল স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের এক ছাতার নিচে নিয়ে আসতে হবে।

দিলীপ রায় আরও বলেন, আনভীর সাহেবের নেতৃত্বে স্বর্ণ ব্যবসাকে প্রসারিত করে একদিন গার্মেন্টস শিল্পের চেয়েও এগিয়ে নিয়ে যেতে পারব বলে আমার বিশ্বাস। স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের অধিকার ও সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সকলকে সম্মিলিত ভাবে অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য হতে হবে বলেও ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে করে বলেন তিনি। এসময় তিনি সকল ব্যবসায়ীদের সাংগঠনিক নিয়মনীতি, দেশের চলমান আইন-কানুনসহ সাময়িক ধারণাও প্রদান করেন।

বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন পটুয়াখালী জেলা শাখার সভাপতি বিপুল কান্তি দাসের সভাপতিত্বে ও জেলা শাখার সদস্য অভিলাষ কর্মকারের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাজুস ‘ল’ এন্ড মেম্বারশীপ স্ট্যান্ডিং কমিটির সহ-সম্পাদক ও ভাইস চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমান, বাজুস ডিস্ট্রিক্ট মনিটরিং স্ট্যান্ডিং কমিটির সহ-সম্পাদক ও সদস্য সচিব জয়নাল আবেদীন খোকন, বাজুস ল এন্ড মেম্বারশীপ স্ট্যান্ডিং কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য ও সদস্য সচিব রিপুনুল হাসান, বাজুস ডিস্ট্রিক্ট মনিটরিং স্ট্যান্ডিং কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য ও সদস্য পবিত্র ঘোষ, জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক সুবল কর্মকারসহ কেন্দ্রীয় ও জেলার নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

বাজুস ল এন্ড মেম্বারশিপ স্ট্যান্ডিং কমিটির সহ-সম্পাদক ও ভাইস চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমান বলেন, বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সায়েম সোবহান আনভীর দায়িত্ব গ্রহণের পর তারই সহযোগিতায় এই প্রথম আমরা দেশব্যাপী সফর করে জেলা উপজেলা ও গুরুত্বপূর্ণ সাংগঠনিক ইউনিট গুলোতে মতবিনিময় সভা করতে পেরেছি।

বাজুস ল এন্ড মেম্বারশিপ স্ট্যান্ডিং কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য ও সদস্য সচিব মো. রিপনুল হাসান বলেন, বাজুসের সভাপতির নেতৃত্বে আমরা দেশের সকল জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের সকল স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য করে, সকলের অধিকার ও সুরক্ষা নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছেন। জুয়েলারী ব্যবসায় তরুণদের সম্পৃক্ত করে উদ্যোক্তা সৃষ্টির মাধ্যমে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে।

বাজুস ডিস্ট্রিক্ট মনিটরিং স্ট্যান্ডিং কমিটির সহ-সম্পাদক ও সদস্য সচিব জয়নাল আবেদীন খোকন বলেন, অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য হবেন, আপনাদের ভাল মন্দ দেখার বিষয় অ্যাসোসিয়েশনের। সদস্য হবেন না, আপনাদের দায়-দায়িত্ব অ্যাসোসিয়েশন নিবে না। সকল স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা একে অপরের সাথে ভালো সম্পর্ক রাখতে হবে, অন্যদের বিপদে আপদে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। স্বর্ণ কেনাবেচায় সময় ক্যাশ ম্যামোর ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। এছাড়াও পরিচয় পত্র শনাক্তের জন্য এনআইডি ও মোবাইল নম্বর সংরক্ষণের ব্যবস্থা করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

মতবিনিময় সভায় পটুয়াখালী জেলার সকল পর্যায়ের স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা অংশগ্রহণ করেন। সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলওয়াত ও গীতা থেকে পাঠ করা হয়। পরে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে ফুল দিয়ে বরণ করে জেলার স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা।

 

Source : News 24

Copyright © 2022 Sayem Sobhan Anvir.
All Rights Reserved.