Pre-loader logo

সুস্বাদু খাবার নিয়ে বাণিজ্য মেলায় ‘বাবা রাফি’

সুস্বাদু খাবার নিয়ে বাণিজ্য মেলায় ‘বাবা রাফি’

ইন্দোনেশিয়ার বিখ্যাত কাবাব চেইন ‘বাবা রাফি’ ঢাকায় নিয়ে এসেছে বসুন্ধরা গ্রুপ। বাবা রাফির ভিন্ন স্বাদের মজাদার খাবার এবার বাণিজ্য মেলায়ও পাওয়া যাচ্ছে। মানসম্মত এসব খাবার মেলার প্রথম দিনেই ক্রেতা টেনেছে। বাণিজ্য মেলায় জেনারেল মিনি প্যাভিলিয়ন-২তে (শিশুপার্কের পাশে) অবস্থিত বাবা রাফির স্টলে সব বয়সীদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো।
সরেজমিন মেলা ঘুরে দেখা যায়, বাবা রাফির স্টলে সম্পূর্ণ নতুন ধরনের, নতুন স্বাদের ভাবল পেটি বার্গার এবং কম্বো বার্গার (১) বিক্রি হচ্ছে। পানীয়সহ ডাবল পেটি বার্গার বিক্রি হচ্ছে ১৮০ টাকায় এবং কম্বো বার্গার (১) ১৫০ টাকায়। এ ছাড়া কাবাব ১৩০ টাকায়, চিকেন বা বিফ বার্গার ১৩০ টাকায়, কম্বো বার্গার (২) ১৮০ টাকায়, কাবাব রাইস ১৩০ টাকায়, আইসক্রিম ১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে বাবা রাফির স্টলে। একই সঙ্গে কোল্ড ড্রিংকস, কফি এবং বোতল পানিও পাওয়া যাচ্ছে এখানে।
গতকাল বাণিজ্য মেলায় বাবা রাফির স্টল উদ্বোধন করেন বসুন্ধরা গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক (অর্থ ও হিসাব) মির্জা মুজাহিদুল ইসলাম। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন বসুন্ধরা গ্রুপের সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (অর্থ ও হিসাব) আরিফুল ইসলাম আখন্দ, বসুন্ধরা গ্রুপের পরিচালকের এপিএস শবনম মুসতারী, বাবা রাফির ব্র্যান্ড মানেজার শামসুদ্দোহা শাফায়েত, হেড অব অপারেশন নন্দন কুমার দেবনাথ, ম্যানেজার প্রোডাকশন আরিফ হাসান মাহমুদ, ম্যানেজার পারচেজ কাজী মোশাররফ হোসেন প্রমুখ।
আরিফ হাসান মাহমুদ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বাণিজ্য মেলার বাইরে রাজধানীতে চারটি আউটলেট রয়েছে বাবা রাফির। ক্রেতার পছন্দ বিবেচনায় রেখে এসব খাবার তৈরি করা হয়। আশা করছি বাণিজ্য মেলাতেও বাবা রাফির খাবার ক্রেতার মন জয় করবে।’
গতকাল বাবা রাফিতে বার্গার খেয়ে বের হওয়ার সময় বাবা রাফির বার্গারের স্বাদ কেমন তা জানতে চাওয়া হলে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রওনক কবীর কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আগেও খেয়েছি বাবা রাফির বার্গার। অত্যন্ত মজাদার। খাবারের মানও ভালো। বাণিজ্য মেলাতে বাবা রাফির স্টল পেয়ে নিজে খেলাম, বন্ধুদেরও খাওয়ালাম। বাবা রাফির খাবার অন্যান্য ব্র্যান্ডের দোকানের বার্গারের চেয়ে তুলনামূলক কম দামের।’

Copyright © 2021 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.