Pre-loader logo

স্বাধীনতা কাপ কাবাডিতে কুড়িগ্রাম চ্যাম্পিয়ন

স্বাধীনতা কাপ কাবাডিতে কুড়িগ্রাম চ্যাম্পিয়ন

শেষ হয়েছে তিন দিনব্যাপী বসুন্ধরা গ্রুপ স্বাধীনতা কাপ কাবাডি। টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে কুড়িগ্রাম জেলা। গতকাল শহীদ তাজউদ্দীন ইনডোর স্টেডিয়ামে ফাইনালে চ্যাম্পিয়ন হতে কুড়িগ্রাম ফাইনালে ৫৮-৩৬ পয়েন্টে হারিয়েছে মাদারীপুরকে। কুড়িগ্রাম ৩টি লোনা পেয়েছে এবং মাদারীপুর লোনা পেয়েছে একটি। চ্যাম্পিয়ন, রানার্স আপ ও সেরা খেলোয়াড়দের পুরস্কার বিতরণ করেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. বীরেন শিকদার, এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার) ও সভাপতি বাংলাদেশ কাবাডি ফেডারেশন। বাংলাদেশ কাবাডি ফেডারেশন সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি (পার্সোনেল ম্যানেজমেন্ট-১) হাবিবুর রহমান বিপিএম (বার), পিপিএম, বসুন্ধরা এলপি গ্যাসের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর, মার্কেটিং অ্যান্ড সেলস ফারুক রিজভি ও এম এম জসিম উদ্দিন, হেড অব সেলস অ্যান্ড মার্কেটিং, বসুন্ধরা ফুড অ্যান্ড বেভারেজ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। দিনের প্রথম সেমিফাইনালে মাদারীপুর মাত্র ৬ পয়েন্টের ব্যবধানে হারায় খুলনাকে। ৩ লোনাসহ মাদারীপুরের পয়েন্ট ছিল ৫৩ এবং ১ লোনাসহ খুলনার পয়েন্ট ছিল ৪৭। দ্বিতীয় সেমিফাইনালটি ছিল আরও উত্তেজনাপূর্ণ। কুড়িগ্রাম মাত্র ৪ পয়েন্টের ব্যবধানে হারায় সিলেটকে। কুড়িগ্রামের পয়েন্ট ১ লোনাসহ ৩৯ এবং সিলেটের পয়েন্ট এক লোনাসহ ৩৫। চ্যাম্পিয়ন হয়ে কুড়িগ্রাম পেয়েছে ১ লাখ টাকা। রানার্স আপ মাদারীপুর পেয়েছে ৫০ হাজার টাকা। ১৫ হাজার করে টাকা পেয়েছে দুই সেমিফাইনালিস্ট খুলনা ও সিলেট। ‘প্লেয়ার অব দ্য টুর্নামেন্ট’ কুড়িগ্রামের মিজানুর রহমান ৫ হাজার, রেইডার অব দ্য টুর্নামেন্ট মাদারীপুরের নাসির ৫ হাজার, ‘ক্যাচার অব দ্য টুর্নামেন্ট’ রবিউল ৫ হাজার টাকা ও ফাইনালের সেরা খেলোয়াড় কুড়িগ্রামের আল-আমিন পেয়েছেন ৫ হাজার টাকা। আট দলের টুর্নামেন্টটির আয়োজক বাংলাদেশ কাবাডি ফেডারেশন এবং ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টে ছিল অ্যাডটাচ। টুর্নামেন্টের বাকি চার দল ময়মনিসংহ, বগুড়া, বরিশাল ও চট্টগ্রাম।

Copyright © 2020 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.